5-ti-jinish-ja-santan-prasab-sambandhe-keo-aapnake-bolbe-na

আপনি হয়ত প্রসবের আগে আনেক পড়াশোনা করেছেন, শবাস- প্রশ্বাস নেওয়ার অনুশীলন করেছেন, এবং ডাক্তারের ও পরিবারের অন্য সদস্যদের সব কথা মেনেছেন। তবুও আমরা আজ আপনাকে যা বলব হয়ত আর কেউ বলেনি। প্রসবের সময় আনেক আপ্রত্যাশিত জিনিশ হতে পারে!

১. যেরম আপনি ভেবেছিলেন প্রসব তেমন নাও হতে পারে

আপনি যেমন পরিকল্পনা করেছিলেন প্রসব তেমন নাও হতে পারে। নিজেকে শিথিল ও শীতল করার জন্য যে তেল নিয়ে গেছিলেন তা ব্যবহার করার সুযোগ নাও পেতে পারেন কেননা প্রসব তাড়াহুরোতে করা হচ্ছে। সেই সময় কি হবে বলা যায় না- ডাক্তার অনুপলব্ধ হতে পারেন, আপনার পছন্দের ঘর না পেতে পারেন ইত্যাদি ।

২.  খাওয়া বারণ থাকতে পারে

বেশির ভাগ মহিলাদেরই খেতে দেওয়া হয় না কেননা সি-সেক্সনের আশঙ্কা থাকতে পারে। শুধু  পানীয় বস্তু দেওয়া হয়। তবে প্রসবের সময় খাওয়ার চিন্তা আপনার মাথায় এমনিতেও আসবে না।

৩. অনেকে আপনার লজ্জাস্থানে হাত দেবে

হাস্পাতালে নার্সরা বারবার দেখবে আপনার জরায়ুর কতটা খুলেছে। তাই কেউ লজ্জাস্থানে হাত দিলে চমকে যাবেন না। তবে এমন সময় ব্যাথার চোটে কোনরকম লজ্জা বা লজ্জাস্থান আপনার মাথায় থাকবে না।

৪. যা ভেবেছিলেন তার থেকে অনেক বেশি ঠেলতে হতে পারে

যদিও আপনি জানেন নিজের সন্তানকে কিভাবে ঠেলে বার করতে হবে তাও অনেক মহিলাই বুঝতে পারে না ব্যাপারটা কতটা কষ্টকর হতে পারে। টিভি ও সিনেমা যাই দেখাক, ৩ ঘন্টার প্রসবে মাত্র দশবার ঠেললেই শিশু বেরিয়ে আসবে না।

৫. একটু বিষ্টা হতে পারে

ঠেলতে ঠেলতে এটা খুব সম্ভবত হবে , তবে লজ্জা পাবেন না কেননা এটা অনেকের হয় এবং প্রসবের সময় ডাক্তার অ নার্সদের মাথায় এটা ছাড়া আরো বড়ো চিন্তা থাকে।

এটা সত্য যে প্রসবের সময় আপনার খুব কষ্ট হবে তবে সন্তান মানুষ করার তুলনায় এটা কিছুই নয়। সন্তান জন্মাবার পরমুহূর্তেই আপনি সব কষ্ট ভুলে যাবেন এবং এই অমূল্য মুহূর্ত আপনি সারাজীবন লালন করবেন! 

Leave a Reply

%d bloggers like this: