sisuder-jonno-5ti-sastokor-ebong-poripusto-aahar-babycare-babyfood-recipe-bangla

১.  খাদ্যশস্য এবং ফল

শিশুর ছয় মাস বয়েস থেকে এই খাদ্য দিতে পারেন

উপকরণ:

১. ১/২ কাপ জল

২. ২ টেবিল-চামচ বাড়িতে বানানো চালের গুঁড়ো।(ব্রাউন রাইস ও দিতে পারেন)

প্রণালী:

১. একটি প্যানের মধ্যে জল দিয়ে এটি গরম ।

২. বাড়িতে বানানো চালের গুঁড়ো যোগ করুন এবং দলা বাঁধতে দেবেন না।

৩. এটি কে ভালোভাবে মেশান যতক্ষণ না ঘন হচ্ছে।

৪. এটি পাতলা করতে চাইলে দুধ যোগ করতে পারেন।

৫. মিষ্টি যোগ করার জন্য, আপনার পছন্দের ফলএর মধ্যে মিশিয়ে দিন।

 

২.রাগি জাতীয় খাদ্য

শিশুর ছয় মাস বয়েস থেকে এই খাদ্য দিতে পারেন

উপকরণ:

১. ১টেবিল চামচ বাড়িতে তৈরী রাগির গুঁড়ো।(নিজে বাড়িতে গুঁড়ো করেনিতে পারেন)

২. ১/২ কাপ জল। (অথবা প্রয়োজন অনুযায়ী)

প্রণালী:

১.রাগি এবং জল একসাথে মেশান এবং দানা বাঁধতে দেবেন না।

২. এখন এই মিশ্রণটি হালকা আঁচে পাঁচ থেকে দশ মিনিটের জন্য রান্না করলেই তৈরী।

 

৩.ওটস জাতীয় খাদ্য

শিশুর ছয় মাস বয়েস থেকে এই খাদ্য দিতে পারেন

উপকরণ:

১. ১/২ কাপ ওটস।

২. প্রয়োজন মতো জল।

প্রণালী:

১. একটি পাত্রে জল নিয়ে ভালো ভাবে ফোটান।

২. এবার জলে ওটস মেশান।

৩. স্বাদ অনুযায়ী পছন্দ মতো ফল মেশাতে পারেন।

৪. ওটস রান্না হলে আঁচ থেকে সরিয়ে নিন।

 

৪. সাবুদানা জাতীয় খাদ্য

শিশুর সাত মাস বয়েস থেকে এই খাদ্য দিতে পারেন

উপকরণ:

১. সাবুদানা ২ টেবিল চামচ।

২. ১ চিমটে  এলাচ গুঁড়ো করা।

৩. ১ চিমটে আলমন্ড বাদাম গুঁড়ো।

প্রণালী:

১. সাবুদানা ভালোভাবে জলে ধুয়ে নিন।

২. সাবুদানার আকার ছোট হলে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের জন্য জলে ভিজিয়ে রাখুন অথবা সাবুদানা যদি বড়ো হয় তবে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন।

৩. ফুটন্ত জলে সাবুদানা মেশান এবং রান্না করুন যতক্ষণ না সাবুদানা স্বচ্ছ হচ্ছে।

৪. যখন তৈরী হয়ে যাবে আলমন্ড গুঁড়ো আর এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে নিন।

৫.সুজি জাতীয় খাদ্য

শিশুর ছয় মাস বয়েস থেকে এই খাদ্য দিতে পারেন

 

উপকরণ:

১. ১ কাপ সুজি।

২. ২ চামচ ঘি।

৩. ১ চিমটি এলাচ গুঁড়ো।

৪. ৩ কাপ জল।

প্রণালী:

১. ১টি পাত্রে সুজি নিয়ে হালকা আঁচে শুকনো করে ভাজুন।

২. অন্য পাত্রে জল নিয়ে গরম করে তার মধ্যে ভাজা সুজি মেশান।

৩. ভালোভাবে মেশান যাতে কোনো দলা না থাকে।

৪. যতক্ষণ না সুজি রান্না হয় ততক্ষন এটি নাড়তে থাকুন, যাতে দলা না থাকে তার খেয়াল রাখুন।

৫. এটির মধ্যে ঘি মেশান।

৬. এলাচে গুঁড়ো ভালোভাবে মেশান।

৭. দুধ মেশান এবং প্রয়োজন মতো নরম করুন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: