gorvabostai-12ti-ascharjojonok-jinis-ja-apnor-sontan-apnor-gorvasoye-thaka-kalin-kore-thake-xyz

১. হাঁচি শিশুকে চমকে দেয়

আপনি কি জানেন, যখন আপনি হাঁচি দিয়েছে আপনার শিশু তখন ভয় পেয়েছে? ঠিক তেমন নয়, যদি আপনি খুব জোরে হাঁচি দিয়েছেন অথবা কুকুর খুব জোরে ডেকেছে, তখন আপনার শিশু চমকে উঠতে পারে। সেই অনুভূতি আপনার হতে পারে। এটি খুব সুন্দর এবং আশ্চর্জজনক অনুভূতি, তাই তো?

২.বুড়ো আঙ্গুল খাওয়া

আপনার সন্তান যখন আপনার গর্ভে থাকে তখন পৃথিবীর আলো দেখার আগেই সে বুড়ো আঙ্গুল চোষে। সে তার ক্ষুধা নিবারণ করতে চায় এই ভাবে। এটা আপনার কাছে নতুন কোনো খবরের মতো? কিন্তু আমার কাছে ছিল।

৩. শিশু খুব হেঁচকি তোলে

প্রতিটি গর্ভবতী মহিলাদের যদি পেট লাফায় তবে সেটি তারা অনুভব করতে পারে। এটি আপনার সন্তানের হেঁচকি ওঠা কালীন মুহূর্ত। এটি এক সময় খুব বিরক্তিকর হতে পারে, কিন্তু আপনি জানেন এটি কেন হয়। জানতে পারলে তো?

৪.দুর্গন্ধ থেকে দূরে থাকুন

ভূমিষ্ট হবার আগে শিশু শুধুমাত্র পদাঘাত করতে পারে। কিন্তু শেষের তিন মাসে শিশুটির মা কোন খাবার খাচ্ছে তার ঘন্ধ পায়। সত্যি যে কতটা অবিশ্বাস্য?

৫.হাই তোলা থেকে দূরে। এটা আপনার বিরক্তিকর হয়ে উঠতে পারে

শিশুর হাই তোলা খুব সুন্দর এবং আকর্ষক হয়। কিন্তু ভেতরে হাই তোলা? হ্যাঁ এটা ঠিক, আপনি সবকিছু কি আপনার সন্তানের জন্য করতে চান না?

৬. স্বপ্ন দেখা, এটি সম্পর্কে কী হতে পারে তা অনুমান করা যায়?

গবেষকরা সম্পূর্ণরূপে নিশ্চিত নন কিন্তু পরবর্তী মাসগুলিতে শিশুর চোখে দ্রুত নির্দেশ করে যে আপনার শিশু স্বপ্ন দেখছে। কিন্তু কোন ভ্ৰূণ কি ধরণে স্বপ্ন দেখতে পারে তার সম্পর্কে কি কোনো ধারণা আছে?

৭.খাবার, কোনটা সুস্বাদু কোনটা নয়?

রসুন, আদা এবং আঙুরের মত কিছু খাবারে থাকা অ্যামনিয়োটিক তরল স্বাদ পরিবর্তন করে। ১৫ সপ্তাহে, আপনার শিশুর মিষ্টি স্বাদ গ্রাস করে, সে অ্যামনিয়োটিক তরল গ্রাস করে যখন এটি মিষ্টি হয়, এবং কম তিক্ত হয়। তাই আপনার বাচ্চার পছন্দ মতো কিছু খাবার খেতে হবে আপনাকে।

৮. চোখের পলক ফেলা

২৮ সপ্তাহে আপনের সন্তান চোখ খুলতে পারে। তারা তেমন ভাবে কিছু দেখতে পাই না, তবে গবেষকদের ধারণা পেটের বাইরে থেকে তারা আলোর সরে যাওয়া কে অনুভব করতে পারে। আপনি কি মনে করেন এই আলোর গতিকেই সে স্বপ্নে দেখে?

৯. গর্ভে থাকা কালীন পস্রাব এবং বাইরের পস্রাব কি একই?

প্রথম ৩ মাসের শেষে, আপনার শিশুর প্রস্রাব উৎপাদন শুরু করবে। অ্যামনিয়োটিক তরলটি গিলে ফেলা, হজম হয়, কিডনি দ্বারা ফিল্টার করা হয়, এবং তারপর আবার ব্যাক্টেরিয়ায় প্রবেশ করে এবং প্রক্রিয়াটির পুনরাবৃত্তি হয়।

১০. হাসি। সব কিছুর পর হাসির কোনো দাম হয় না

আপনার সন্তানের হাঁসি আপনাকে সব চিন্তা থেকে মুক্ত করতে পারে। সমস্ত রকমের চাপ থেকে আপনাকে মুক্ত করতে পারে আপনার সন্তানের হাসি। কিন্তু আপনার বাচ্চা গর্ভের মধ্যে তার পুরস্কার বিজয়ী হাসিটি আপনি দেখতে পারছেন না বলে, তা চিন্তা করবেন না। সে শীঘ্রই তা আপনাকে দেখাবে।

১১. আপনার কথা শুনছে

গর্ভাবস্থার শেষ ১০ সপ্তাহের মধ্যে, শিশুরা তাদের মায়ের কণ্ঠস্বর সক্রিয়ভাবে শুনতে পায়। সে আপনাকে কথা বুঝতে সক্ষম হবে না, কিন্তু সে মনোযোগ দিয়ে শোনার চেষ্টা করবে।

১২.পরিশেষে, শুধু চোখের জল নয়

এটি আপনাকে কিছুটা ক্ষতি করতে পারে কিন্তু শিশুরা আপনার গর্ভে থাকাকালীন কান্নাকাটি শুরু করে। কান্না তাদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ যোগাযোগ সরঞ্জাম। তারা এমনকি আসা আগে পর্যন্ত কান্নার করার চেষ্টা করতে পারে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: