apnar-nobojatoker-mostisker-akar-o-peshi-bikoshito-hochhe-ki-na-ta-kibhabe-lokkho-rakhben

প্রসবের সময়, আপনার শিশুর মাথা এবং খুলি অত্যন্ত ভঙ্গুর। আপনার সন্তানের মাথা বেশ নরম, যেটি একমাত্র কারণ যার জন্যে আপনি আপনার গর্ভ থেকে তাদের আপেক্ষিক আরাম ও ধাক্কা দিয়ে তাকে প্রসব করতে পারেন। আপনার সন্তানের মাথা পরের কয়েক মাসের মধ্যে একটি নিখুঁত আকৃতি পায়।

আপনার সন্তানের মাথার ফাঁপা ভাব, বা নরম স্পট, আঠারো মাসের পরে সম্পূর্ণরূপে বিকশিত হয়। আপনার বাচ্চার মাথায় দুটি নরম স্পট রয়েছে যা একটি পেশীর নিরাপদ প্যাডিং দ্বারা আবৃত থাকে যা স্বল্প আঘাতের ফলে ক্ষতির সম্ভাবনাকে দূরে রাখে। যাইহোক, যতক্ষণ না তারা উন্নত হয়, আপনার শিশুর মাথা খুবই সংবেদনশীল।

আপনার সন্তানের মস্তিষ্কের বিকাশের মাত্রা সম্পর্কে একমাত্র ফন্টানেল নামুক একটি মস্তিষ্কের পদার্থ বলে দেবে। এটি মেনিনজাইটিস বা ওই ধরণের অসুস্থতার ফলে মস্তিষ্কে যেই প্রভাব পড়ে তা বের করতে সাহায্য করে। ডাক্তাররা জন্মের কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত মস্তিষ্কে ক্ষতির নির্ণয় করতে পারেন না, কারণ আপনার সন্তানের মাথার সম্পূর্ণরূপে পরিপুষ্ট হয়না। মোটামোটি কয়েক সপ্তাহ কাটার পর তা নির্ণয় করা যায়।

জন্ম থেকে এক বছর বয়স অবধি আপনার শিশুর মাথা অত্যন্ত ভাবে পরিবর্তনশীল। নর্মাল বা সাধারণ প্রসবের দ্বারা যেই শিশু জন্মেছে তার মাথার আকার একটু ছুঁচোলো হয়, আবার অন্য পদ্ধতিতে যেসব শিশুরা জন্মায় তাদের মাথা একটু চ্যাপ্টা বা নালের আকারের হয়। শিশুর মাথা পুরোপুরি সঠিক আকার ধারণ করতে বেশ খানিকটা সময় লাগে। শিশু কোন দিকে পাস্ ফিরে ঘুমায় তার ওপরেও তার মাথার আকার নির্ভর করে। কাজেই শিশুকে সঠিক দিক ও পাশ ফেরানো আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: