apnar-bachha-khabar-mukhe-niye-fele-dichhe-ki-na-seti-nischit-korar-6ti-upay-bangla

১. আপনি শিশুকে পুষ্টিকর খাদ্য দেওয়ার জন্য আস্তে আস্তে সুস্বাদু খাদ্যের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন, যা সাধারণত তার প্রথম দিকে ভাল নাও লাগতে পার।যদি আপনার শিশু নির্দিষ্ট খাবারটি মুখ থেকে ফেলে দেয় তাতে ওকে জোর করবেননা। শক্ত খাবারগুলিতে খাওয়া কিছু বাচ্চাদের জন্যে বেশি সময় লাগাতে পারে, তাই আপনার বাচ্চাকে সেই গতিতে চলতে দিন যেটা ওর জন্যে আরামদায়ক।

২. খাবারের মুখে নিয়ে বাইরে ফেলে দেওয়া মানেই যে সবসময় আপনার সন্তানের আপনার খাদ্য পছন্দ না তা নয়। কিভাবে একবারে অতটা খাবার গিলতে হয় সেটা হয়তো সে বুঝতে পারছেনা।আপনি নিজেকে শান্ত রাখুন ও ধৈর্য ধরুন আর সবসময় লক্ষ রাখুন ওর পছন্দ অনুযায়ী খাবার দিতে। তারা যখন প্রস্তুত হবে আপনি জানতে পারবেন।

৩. আপনার সন্তান একটি নির্দিষ্ট খাদ্য যদি মুখ থেকে বারবার ফেলে দেয় তার মানে ওর হয়তো সেই খাবারটি পছন্দ হচ্ছেনা। কাজেই ওকে জোর করবেননা; তা যতই পুষ্টিকর হোক না কেন। একটা সময় সে নিজেই ক্ষুধার্ত বোধ করবে, তাই সে যা পছন্দ করে সেরকম কিছু খাওয়ান। চেষ্টা করুন উল্লেখ্য খাদ্যটি অন্য রেসিপিতে তৈরী করতে যাতে পরের বার থেকে সে খেতে পারে।

৪. যখন ক্ষুধার্ত থাকে তখনই আপনার সন্তানকে খাওয়ান কারণ ক্ষুধার্ত অবস্থায় আপনার সন্তানের পেটে খাবার যাওয়া সহজ। পেট ভর্তি অবস্থায় শক্ত খাদ্য খাওয়া তাদের জন্যে কঠিন।

৫. শিশুকে নিজের মতো করে নিজে হাতে খেতে দিন। তাতে সে যদি আশেপাশে চড়িয়ে ছিটিয়েও দেয়, তাহলেও তাকে আটকাবেননা। সময় নিলেও নিক, এভাবেই শিশু শিখববে। শুধু নজর রাখবেন যাতে ক্ষতিকারক কিছু না করে বসে খেতে গিয়ে।

৬. নরম খাদ্য, ফল, এবং থেঁতো করে কোনো খাবার আপনার সন্তানের জন্যে বেশ ভাল। যেসব খাদ্য রঙিন এবং আকর্ষণীয় সেগুলো আপনার সন্তানকে প্রলোভিত করে। খাওয়ানোর সময় শিশুর হাতে চামচ ধরিয়ে রাখুন এবং ওর ইচ্ছেমত ওকে মাঝে মাঝে থালা থেকে খাবার তুলে খেতে দিন ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: