shishur-kan-futo-korar-age-egulo-jana-aboshyok

শিশুর কানে ফুটো সাধারণত এনেস্থেসিয়া অর্থাৎ অবস নাকরেও করা হয়। তাই আপনার শিশুর ব্যথা অনুভব হতে পারে। কিছু বাবা-মায়েদের জন্য, এই সমস্ত কাজ শিশুকালেই সম্পৃক্ত হয়ে যাওয়া ভালো যেহেতু তাদের কোন বোধ থাকেনা। আবার, অন্য বাবা মায়েদের মনে হয় বাচ্চার কান বিদ্ধ করার আগে তার একটু বেড়ে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করা প্রয়োজন। আপনার শিশুর কান ফুটো করানো সমূর্ণ আপনার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত যা আপনার বাচ্চার সর্বোত্তম স্বার্থে ও তার ভাল মন্দ চিন্তা করেই করতে হবে।

আপনার বাচ্চার কানে ফুটো করার আগেই আপনার ডাক্তারকে আপনার মত জানিয়ে রাখা উচিত। শিশুর কান ফুটো কোয়ার আগে আপনার শিশুর একটু বেড়ে যাওয়ার জন্য আপনার অপেক্ষা করা যুক্তিযুক্ত। সহজ কারণ হচ্ছে, বাচ্চারা ছটফটে। আপনার বাচ্চা তার মুখ থেকে জীবাণু স্থানান্তরিত করতে পারে তার হাত মুখ থেকে বের করে কানে দিয়ে। একটি সংক্রামিত কান পুরোপুরি পুষ্ট হতে বেশ খানিকটা সময় নেয় যতটা তার একটু বড় হয়ে যাওয়ার পর নেয়না। শিশু অবস্থায় তা অনেক বেশি যন্ত্রণাদায়কও হয়। একটি অল্প বয়স্ক শিশুর তুলনায় একটি ছোট শিশুর সদ্য ফুটো কানের যত্ন নেওয়া কঠিন।

আপনি আপনার সন্তানের কানের ফুটো করার যে যন্ত্র ব্যবহার করা হয় তার স্বাস্থ্যবিধি সপর্কে কতটাই বা জানতে পারেন। যেহেতু সে শিশু তাই সব ধরণের সংক্রমণের প্রবণতা হতে পারে, কিন্তু বাবা মা হিসেবে আপনিও আপনার ইচ্ছাকে দমিয়ে রাখতে পারেননা। যদি আপনি একদমশিশু অবস্থায় কানে ফুটো কোরান, তবে তাতে তার আরোগ্য বা জ্বর হতে পারে। শিশুরা তার দেহে নতুন পরিবর্তনের প্রতিক্রিয়া খুব তাড়াতাড়ি নিয়ে ফেলে যার ফলে অসুস্থতা হতে পারে। তাই কাজ করার আগে আপনার প্যাডিয়াটিক বিসজেজ্ঞের পরামর্শ নিন।

যখনই আপনি আপনার সন্তানের কানে বিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেন, তখন সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে ২৪ক্যারট সোনার কানের দুল ব্যবহার করুন। কোনও উপসর্গ আপনার বাচ্চার ত্বককে খারাপভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে। যেহেতু আপনার শিশুর শরীর এবং ত্বকটি জন্মের পরে খুব সংবেদনশীল, আপনার শিশুর কানের সৌন্দর্য পেতে তাড়াহুড়ো করার আগে সতর্কতা অবলম্বন করা উত্তম।

আপনার বাচ্চার কান বিদ্ধ হওয়ার পর, অন্তত ৬ সপ্তাহের জন্য কানের দুলটি খুলবেন না। ইনফেকশন, জ্বালা বা এলার্জি প্রতিক্রিয়াগুলির জন্য তীক্ষ্ন চোখ রেখে যত্ন নিন। কমপক্ষে একদিন অন্তত একবার কানের দুলকে যত্ন সহকারে মোচড়ান, এটি দ্রুত ত্বকের সাথে আটকে চিটে গিয়ে সংক্রমিত হওয়া থেকে সাহায্য করবে। ফুলে যাওয়া, রক্ত ​​ঝরা, এবং কস পড়া সাধারণ লক্ষণ, তাই আপনার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ এবং নার্সের সাথে আপনার সন্তানের জন্যে পরামর্শ নিন।

সংক্রমণের একটি তাত্ক্ষণিক ঘরোয়া প্রতিকার হল কানের সেই এলাকাটি অ্যালকোহল বা আফ্টারসেভ দিয়ে আলতো করে মোছা। আপনার বাচ্চার কান হল এমন এক জিনিস যা প্রত্যেক নতুন বাবা মা তার সম্পর্কে অনিশ্চিত। এটি আপনার ডাক্তার এবং পরিবারের বয়স্কদের সাথে পরামর্শ করারও প্রয়োজন।

সব শেষে, এটি একটি পিতা বা মাতা প্রবৃত্তি যা আপনাকে প্রক্রিয়াটি পরিচালনা করায়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: