probiotic-bacteria-ekti-nobojatok-maronattok-o-durarogyo-rog-theke-mukto-korte-pare-bangla

শিশুদের নিয়ে দুশ্চিন্তা বর্তমানের সমস্ত বাবা মায়েদের হয়ে থাকে কারণ আজকাল রোগে ভোগার সমস্যা বেড়ে গেছে অথচ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেছে। এমনকি বর্তমান যুগে নবজাতকের মৃত্যুর হার ও বেশ কয়েক শতাংশ বেড়ে গেছে। স্বাভাবিক ভাবেই হতাশা আপনাকে ঘিরে ধরেছে এবং আপনি আপনার শিশুর কিসে ভাল হবে তা নিয়ে চিন্তিত। তবে, এই মুহূর্তে আপনার জন্যে একটি বিশেষ সুখবর আছে যার জন্যে আপনাকে আর ফিরে তাকাতে হবেনা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের বিজ্ঞানীরা মিলে একটি সস্তা চিকিত্সা পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন যা সম্ভবত প্রতিবছর কয়েক হাজার নতুন নবজাতকের প্রাণ বাঁচাতে পারে।

এবং এটি সক্রিয়ভাবে প্রমান হয়েছে যে এতদিন ধরে এশিয়ার প্রত্যেকটি বাড়ির রান্নাঘরেই এর উপায় হাজির ছিল যা আমরা অনেকেই বুঝতে পারিনি। এর নাম হল প্রোবায়োটিক ব্যাকটিরিয়া যা কিমচি, আচার এবং নানা রকমের সবজির মধ্যে পাওয়া যায়।

শিশুদের খাওয়ানোর মাধ্যমে মাইক্রোবগুলি গ্রহণ করালে সেপসিস নামক মারণাত্মক পদার্থ থেকে ঝুঁকির হ্রাস হয়; একথা বিজ্ঞানীরা এই বুধবার জার্নাল নেচারে স্বীকার করেছেন।

বিশ্বব্যাপী নবজাতকের একটি শীর্ষ হত্যাকারী হল সেপসিস। প্রতি বছর ছয় লাখেরও বেশি শিশু রক্ত ​​সংক্রামক রোগে মারা যায়।

 

নেব্রাস্কা মেডিক্যাল সেন্টারের পাবলিক হেলথের একটি শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ পিনাকি পানিগ্রাহী বলেন, “যেই মুহূর্তে এই সেপসিস শিশুকে আক্রমণ করে সে সক্রিয়তা বন্ধ করে ফেলে এবং হঠাৎ করেই তার কান্নাকাটি করা বা দুধ খাওয়া বন্ধ হয়ে যায়।”

তিনি আরো বলেন,” যতক্ষনে একজন মা তাঁর শিশুকে এই অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসেন, ততক্ষনে এই বিষক্রিয়ার ফলে শিশুর মৃত্য ঘটে যায়। ভারতবর্ষের হাসপাতালগুলিতে, আপনি অনেক এমন শিশুর মৃত্যু দেখতে পান যারা সেপসিসের স্বীকার হয়ে মারা যায়, আর আপনার হৃদয় ভেঙ্গে যায়। “

গত ২০ বছর ধরে ডাক্তার পানগ্রাহী সেপসিস প্রতিরোধ করার জন্য গবেষণা করে চলেছেন।

প্রাথমিক পর্যায়ে তিনি ভেবেছিলেন প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া দ্বারা এটি প্রতিরোধ করা যেতে পারে কারণ তারা অন্য সংক্রমণে ভালভাবে কাজ করে যা প্রিমির উপর প্রভাব ফেলে,জেক বলা হয় নেক্রোটিসিং এন্টারকোলাইটিস। এটা অন্ত্রের ক্ষতি করে।

তড়িঘড়িভাবে রক্ষা করার জন্য উনি ব্যাকটেরিয়ার সর্বোত্তম শ্রেণীটি খুঁজছিলেন যা সেপসিস থেকে শিশুদের রক্ষা করতে পারেন।

পানিগ্রাহী বলেন, “আমরা প্রাথমিক প্রাণীর এবং মানুষের গবেষণায় ২৮০ টির বেশি শ্রীনি দেখেছি দেখিয়েছি। তাই এটি একটি খুব পদ্ধতিগত প্রক্রিয়া ছিল।”

অবশেষে, সবচেয়ে আশানুরুপ শ্রেণীটি পাওয়া গেল একটি সুস্থ ভারতীয় শিশুর ডায়পার থেকে বিচ্ছিন্ন করা ল্যাকটোব্যাসিলাস প্লান্টারাম নামক ব্যাকটিরিয়া থেকে। তাই উনি এবং তার বিজ্ঞানী দল গ্রামীণ ভারতে হাজার হাজার শিশুর উপর বড় আকারের গবেষণা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

ব্যাকটেরিয়া যেভাবে কাজ করছিল এবং সাফল্য এনে দিচ্ছিল তা দেখে ওনারা সত্যিই অবাক হয়েছিলেন।

যেসব শিশুদের মাইক্রোব খাওয়ানো হয় একটু চিনির সাথে মিশিয়ে তাদের ক্ষেত্রে সেপসিস থেকে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বা মৃত্যুর সম্ভাবনা অস্বাভাবিকভাবে কমে যায়। ৪০ শতাংশের মধ্যে ৯ শতাংশ থেকে ৫.৪ শতাংশে আক্রান্তের হার কমে যায়।

কিন্তু এটাই সব না। প্রোবায়োটিক আরো বিভিন্ন ধরণের সংক্রমণ কমিয়ে দেয়। শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ প্রায় ৩০ শতাংশ কমে যায়।

“এটি একটি বিস্ময়কর বিষয় ছিল, কারণ আমরা মনে করি না যে ব্যাকটেরিয়া ফুসফুসের মত দূরবর্তী অঙ্গে কাজ করতে পারে” পানিগ্রাহী বলেন।

চিকিত্সা পদ্ধতিটি এত ভালো কাজ করেছে যে বিচারের জন্য নিরাপত্তা বোর্ড শুরু থেকেই বন্ধ ভাবনা চিন্তা করা করে দিয়েছে। “আমরা ৮ হাজার শিশুর নামকরণ করার পরিকল্পনা করছিলাম, কিন্তু মাত্র ৪০০০ শিশুকে চিকিৎসা করতে পেরেছি,” পানগ্রাহী বলেছেন।

গবেষণায় দেখানো একমাত্র উল্লেখযোগ্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছিল পেটের গন্ডগোল, যা ৬টি শিশুর মধ্যে ঘটেছিল। কিন্তু প্রোবায়োটিক পেয়েছে সে দলের তুলনায় প্লাসবো গ্রুপে আরও ঘটনা দায়ের করা ছিল।

পাঙ্গিগ্রি একটি শিশুর প্রতি ১ ডলারের প্রোবায়োটিক খরচের একটি কোর্স অনুমান করেন। “এটি একটি খুব সহজ ভাবে নির্মিত হতে পারে, যা এটিকে সস্তা করে তোলে” , পানিগ্রাহী বলেছেন।

এখন আপনি যদি এখানে কি ঘটছে তা নিয়ে ভাবছেন, এটি প্রায় অসম্ভব বলে মনে হয়। মনে রাখবেন সোপিস একটি ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ। তাই গবেষকরা এখানে ব্যাকটেরিয়ার সাথেই ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ প্রতিরোধ করার উপায় বার করেছেন।

এটা কিভাবে সম্ভব? ব্রিটিশ কলাম্বিয়া, ভ্যানকুভারের বিসি চিলড্রেন হাসপাতালে নয়াবিদ্যার ডাক্তার ডি পাসকাল ল্যাভি বলেছেন, “অত্যাবশ্যকীয় এই ব্যাকটেরিয়াগুলির বেশ কয়েকটি স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে যা আমরা গত কয়েক বছর ধরে বুঝতে শুরু করেছি”।

প্রথমে, এই উপকারী ব্যাকটেরিয়া পরিবেশ পরিবর্তন করে বা কেবল সম্পদ ব্যবহার করে শিশুর অন্ত্রে ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াগুলিকে মোকাবিলা করে,” একথা ল্যাভি বলেছেন।

প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়াও একটি যৌগ উৎপন্ন করে যা অন্ত্রের প্রাচীরকে শক্তিশালী করে। “এটি রক্তের প্রাচীরের মধ্য দিয়ে যাওয়া খারাপ ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করার জন্য একটি বাধা হিসাবে কাজ করে,” তিনি বলেছেন।

এবং, প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া একটি শিশুর অনাক্রম্যতা শক্তিকে বাড়িয়ে দিতে শুরু করতে পারেন।

“তারা একটি স্বাস্থ্যকর ভাবে অনাক্রম্যতা পদ্ধতিকে পরিপক্কতা উন্নীত করতে পারে,” ল্যাভি বলেছেন। “প্রোবায়োটিক্স মাদকের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী হতে পারে।”

কিন্তু ওষুধের মতো, সারা পৃথিবীতে প্রসূতির আগে সম্পূর্ণ পরীক্ষা করা দরকার। এর মানে হল যে আরো কোনো অবস্থানে শিশুর ওপর সেপিসিসের ঝুঁকি পরীক্ষা করা, যারা অকালমৃত হওয়ার সম্ভাবনা রাখে বা কম বয়সী বা কম ওজনের।

“সেপসিস সারা বিশ্বে একটি গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা,” ল্যাভি বলেছেন। “এই গবেষণা দ্বারা বিপুল সাফল্যের সম্ভাবনা আছে।”

Leave a Reply

%d bloggers like this: