7-ti-prosno-ja-steera-swamider-jiggasa-korte-chan-bangla

বিয়ে ৩ বছরের হোক বা ৩০ বছরের, কিছু প্রশ্ন তো থেকেই যায়। তার উত্তর পেতেও পারেন, নাও পেতে পারেন! উত্তর পেলে তার থেকে খুশির কিছু হয়না, আবার উত্তর না পেলে মনের মধ্যেই প্রশ্ন ঘুরপাক খায়, তাই নয় কি? এবার জেনে নিন কি কি প্রশ্ন থাকে।

১. ঈশ্বরের সাথে তোমার কি সম্পর্ক?

আমাদের দেশে তো বার মাসে তেরো পার্বন। তাই এই প্রশ্নটা অনিবার্য। আপনার স্বামী ঈশ্বরে বিশ্বাস করেন কি না, রোজ প্রার্থনা করেন কি না, এই প্রশ্নগুলি দিয়ে তাকে বিদ্ধস্ত করবেন না। নিজের বিশ্বাসে টিকে থাকুন আর তাঁকে তাঁর বিস্বাসে টিকে থাকতে দিন।

২. আমার ব্যাপারে তোমার সবচেয়ে কি ভালো লাগে?

প্রশংসা শুনতে কার না ভাল লাগে। পোশাক ভালো লাগলো কি না, নতুন চুলের স্টাইল কেমন লাগলো, এই সব প্রশ্ন মাথায় ঘুরবেই। আপনার কথা বলার ধরন বা আপনার বুদ্ধি, ইত্যাদি কোন জিনিসটা তার সব চেয়ে পছন্দ এটা আপনার স্বামী হয়ত আপনাকে বলতে ভয় পায়, পাছে আপনার খারাপ লাগে। কিন্তু, এই প্রশ্নগুলো বারবার স্বামীকে জিজ্ঞেস করে তাঁকে বিরক্ত করবেননা। সবার শেষে এটা সত্যি যে আপনি যেমনই হন না কেন, আপনাকে উনি মন থেকে স্বীকার করেন যেমন আপনি ওনাকে করেন।

৩. আমায় মোটা লাগছে?

এটা স্বামীদের জন্য সব থেকে ভয়ংকর প্রশ্ন; হ্যা বললেও বিপদ, না বললেও প্রশ্নের বান! এক্ষেত্রে আপনার উচিত নিজেকেই আন্দাজ করে নেওয়া যে আপনার স্বামীর আপনাকে কেমন লাগতে পারে।

৪. তুমি আমাকে নিয়ে গর্বিত?

তিনি যে গর্বিত এটা আপনিও জানেন, তবুও শুনতে ভালো লাগে, তাই নয় কি? উনি বলতে অস্বস্তি বোধ করলেও আপনি ভালো রান্না করলে বা অন্য কিছু ভালো করলে উনি নিশ্চই গর্বিত হন! তাই ওনাকে এই প্রশ্নের মুখে ফেলে বিব্রত করবেন না, মনে মনে আপনি খুশি থাকুন।

৫. কিসে কিসে রাগ হয়?

এই প্রশ্ন তখন করবেন যখন মেজাজ ভালো আছে! স্বামীর কি খারাপ লাগে এটা জেনে রাখা আপনাদের সম্পর্কের জন্য খুব ভালো! তবে, সময় বুঝে জিজ্ঞেস করবেন।

৬. পাশের বাড়ির মেয়েটিকে কি আমার থেকে সুন্দর দেখতে?

স্বামীর ওপর বিশ্বাস থাকলেও এই প্রশ্ন মাথায় আসে। কিন্তু মুখের ওপর এ প্রশ্ন করলে আপনার স্বামী অপ্রস্তুতে পড়তে পারেন! এবং না জানলে আপনি বরং শান্তিতেই থাকবেন!

৭. আমাকে বিয়ে করে কি তুমি সুখী?

এই প্রশ্ন এবং তার উত্তর আপনাদের দুজনকেই আনন্দ দেবে এবং সম্পর্ক মজবুত করবে কারণ বিয়ে হল সারা জীবনের সম্পর্ক।

নিজেদের খুশি রাখুন এবং এই প্রশ্নগুলি তখনই করুন যদি সত্যই আপনার এই উত্তরগুলি জানা প্রয়োজন হয়ে ওঠে। বিভিন্ন রকমের অঙ্গভঙ্গি করলেও এসব উত্তর পেতে পারেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: