জানুন কি ভাবে চা বানালে তার স্বাদ বাড়বে ও ক্ষতি কমবে

চা খাওয়া নিয়ে বিভিন্ন মানুষের বিভিন্ন মত। কেউ ভাবেন চা খালে শরীরের ক্ষতি কেউ নিজের তৃপ্তি আস্বাদন করে। এমন অনেক ভিন্ন মত আপনি শুনতে পাবেন।

তবে চা পান করার জন্য নির্দিষ্ট নিয়ম আছে। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর আপনার চায়ের প্রয়োজন হয়। তার পরে সারা দিন কাজে ফাঁকে অনেক বার চা পান করেন। আবার সন্ধে বা রাতে চায়ের প্রয়োজন হয়।

কিন্তু চা পান করার সময়ে কিছু জিনিস আপনাকে খেয়াল করে চলতে হবে। তবেই আপনি খতিয়ে থেকে রক্ষা পেতে পারেন এবং চায়ের মধ্যে থাকা পুষ্টি আপনি গ্রহণ করতে পারবেন।

চায়ের পাতা, দুধ এবং চিনি একসঙ্গে ফুটিয়ে চা বানাবেন না। প্রথমে জল ফোটান, তার পরে চা পাতা মেশান। সবার শেষে দুধ মেশান।

 

১. সকালে কখনোই খালি পেটে চা খাবেন না, সকালে খালি পেটে চা খেলে অ্যাসিডিটির সমস্যা হতে পারে। তাই কিছু খেয়ে তার পর চা পান করুন।

২. চা বানানোর সময় সবসময় ফুটন্ত জলে চা পাতা দেবেন। এর ফলে চায়ের রং, গন্ধ এবং স্বাদ ঠিক থাকবে।

৩. যে পাতা দিয়ে ১বার চা বানিয়েছেন সেই পাতা দ্বিতীয় বার ব্যবহার করবেন না। এতে আপনার শারীরিক ক্ষতি হতে পারে।

৪. বানানো চা বেশি সময় ধরে রেখে খাবেন না। ৩০- ৪৫ মিনিট হয়ে গেলে সেই চা ফেলে দিন নয়তো আপনার বদহজম হতে পারে।

৫. চা পুরোপুরি ঠান্ডা করে খাবেন না, হালকা গরম থাকা কালীন চা খাবেন। অনেকে আবার ঠান্ডা চা খেতে পছন্দ করে।

৬. খুব বেশি সময় ধরে চায়ের জন ফোটাবেন না, এতে চায়ের স্বাদ খারাপ হয়ে যায়।

৭. ওষুধ খাবার পর কখনো চা পান করবেন না কারণ এতে থাকা ট্যানিন ওষুধের কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়।

৮. রাতের বা দুপুরের খাবারের পর চা খাবেন না। কারণ চায়ের মধ্যে ফেনোলিক কম্পাউন্ড থাকে যা শরীরের আয়রনের গ্রহণক্ষমতাকে কমিয়ে দেয়। যার ফলে, অ্যানিমিয়ার সমস্যা হতে পারে।

সুতরাং সুস্থ থাকুন, নিয়ম মেনে চলুন, সবার সাথে শেয়ার করে সতর্ক করুন!!

Leave a Reply

%d bloggers like this: