স্টোন এবং গর্ভাশয়ে সিস্ট ও ফাইব্রয়েড গলিয়ে দিতে আদার সাহায্য জানেন?

আদা একটি ভেষজ উপাদান, প্রাচীন কাল থেকে এটি বিভিন্ন ওষুধ তৈরির কাজে ব্যবহার হয়ে আসছে। কিন্তু আদা শুদু মাত্র খেয়ে নয় আদার সেঁক আপনার জন্য গুরুত্ব পূর্ন। আদার সেঁক বিভিন্ন রোগ উপশমে জাদুর মতো কাজ করে!

পিঠে ব্যথা, রক্ত চলাচল, পেশির ফোলা কমানো, আর্থারাইটিস, কিডনির স্টোন, এবং গর্ভাশয়ে সিস্ট ও ফাইব্রয়েড গলিয়ে দিতে আদার সেঁক উপকারী।

কি করতে হবে জানুন

২০০ গ্রাম আদা বা ১ টেবিল চামচ আদা গুঁড়ো নিন 

বড়ো পাত্রে জল

গামছা বা তোয়ালে

কিছু টা সুতির কাপড়

কি ভাবে তৈরী করবেন?

জল উষ্ণ গরম করুন, ফোটাবেন না। এবার কাপড়টির মধ্যে আদা বা আদা গুঁড়ো ভোরে ভালো ভাবে বেঁধে পুটুলির মতো বানিয়ে নিন, এবং জলের মধ্যে দিন। ৩-৪ মিনিট অল্প আঁচে পাত্রটি রেখে দিন। এবার পুটুলি টি ভালোভাবে চিপে বার করে নিন। আপনার আদার রস তৈরী।

কেমন ভাবে সেঁক দেবেন?

গরম আদার জলে গামছা বা তোয়ালে টি ভালো ভাবে ভিজিয়ে নিন, এবার ভালো করে চিপে আপনার যে জায়গাতে সমস্যা সেখানে গরম গামছা বা তোয়ালে টি রাখুন। খেয়াল রাখবেন খুব বেশি যেন গরম না হয়, নয়তো আপনার ত্বক পুড়ে যেতে পারে। লক্ষ্য রাখুন জলটি যেন ঠান্ডা না হয়ে যায়। কয়েক বার এমন ভাবে সেঁক দিতে থাকুন। তোয়ালে পরিবর্তন করার সময় দেখবেন ত্বক যেন ঠান্ডা না হয়ে যায়। এই ভাবে ২০ -৩০ মিনিট গরম সেঁক দিন। ১ দিন অন্তর অন্তর এই ভাবে করে যান যতদিন না আরাম পাচ্ছেন।

আপনার সিস্টের কোনো অসুবিধা থাকলে ১৪ থেকে ১৫ দিন ধরে প্রতিদিন গরম সেঁক দিতে থাকুন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: