শিশুর খাওয়ায় রুচি বাড়াতে ১০টি উপায়

খাওয়ায় অরুচি শিশুদের মধ্যে একটি সাধারণ সমস্যা এবং বাচ্চাদের সর্দি কাশি এবং জ্বর থেকে এই সমস্যা এসে থাকে। এমনকি জ্বর থেকে সেরে ওঠার পর, হজম প্রক্রিয়া সঠিকভাবে ফায়ার আস্তে একটু সময় নেয়। শিশু এবং বাচ্চাদের কম ক্ষুধার জন্য অন্যান্য কারণগুলি হল নিম্ন স্তরের জিংক, ভারসাম্যহীন হজম, খাবারের মধ্যে অপর্যাপ্ত ফাঁক, দুধ / দুগ্ধজাত দ্রব্য অনেক বেশি খাওয়া। এখানে কয়েকটি উপায় আছে যা আপনাকে আপনার সন্তানের ক্ষুধা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবে।

১. বাধ্যতামূলক ব্রেকফাস্ট

এটা ভালোভাবে জানা আছে যে ব্রেকফাস্টটি দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খাবার। ব্রেকফাস্ট পাচনক্রিয়া বৃদ্ধি করে এবং দিনের কাজের জন্য শরীরকে প্রস্তুত করে। আপনার সন্তানের ক্ষুধা বৃদ্ধির জন্যে একটি সুস্থ ব্রেকফাস্ট সীমানা নিশ্চিত করুন।

২. প্রতি দুই ঘন্টা সময় খাবার দিন

ক্রমবর্ধমান বয়সগুলিতে শিশুদের উচ্চমাত্রার বিপাক থাকে। একদিন তিনবার খাবার তাদের ক্ষুধা অনুভব করতে তাদের পাচনতন্ত্রকে বাড়ানোর জন্য যথেষ্ট নয়। তাদেরপ্রতি দুই ঘন্টা ছাড়া নিয়মিত খাবার দেওয়া উচিত; এটা তাদের ক্ষুধা উন্নতি করে।

৩. খাবার আধা ঘন্টা আগে জল পান করান

খাবার দেবার ৩০ মিনিট আগে জল পান করলে সেটি পাচনতন্ত্রকে সক্রিয় করে তোলে। সকালেও ঘুম থেকে ওঠার পর একই জিনিসটি বজায় রাখুন কারণ তাতে শরীর দীর্ঘ সময়ের জন্যে জলযোজিত থাকে। এই মূল নীতিগুলি স্পষ্ট ভাবে শিশুর ক্ষুধা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

৪. মাঝে মাঝে কিছু স্ন্যাক্স দিন

আপনার সন্তানের যদি ভাল ক্ষুধা চান তাহলে মাঝে মাঝে বেশ কিছুটা পরিমানে ভারী স্ন্যাক্স খাওয়ান। চিপস বা কুকিসের পরিবর্তে একটি স্যান্ডউইচ বা একটি কুকি দিন। কোন স্ন্যাক্স তা স্বাদে ও পুষ্টিতে সবচেয়ে ভাল সেটি চিন্তা করুন।

৫. খাবার হিসাবে দুধ খাওয়াবেন না

যদিও বলা হয় যে দুধ একটি সম্পূর্ণ খাবার, এটি একটি খাবার হিসাবে পরিবেশন করা উচিত নয়। দুধের অতিরিক্ত, যখন এপেটাইসার হিসাবে খাওয়া হলে সেটি পরবর্তী খাবারের জন্য ক্ষুধা হ্রাস করে। দুধের পরিবর্তে পনির বা দইয়ের মতো অন্যান্য খাবার খাওয়াতে পারেন।

৬. মটর বা বাদাম খাওয়ান

মটর খাদ্য উত্সাহী বৈশিষ্টের জন্য পরিচিত। এমনি মাখন না খাইয়ে পিনাট মাখন খাওয়ান। ভাজা মটর ও খাওয়াতে পারেন যা ক্ষুধা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে.

৭. খেলাধুলা এবং ব্যায়াম করতে উৎসাহিত করুন

এটি একটি সুপরিচিত সত্য যে শারীরিক পরিশ্রম ক্ষুধা তৈরি করে। আরো খুদা বাড়াতে বেশি বেশি খেলতে দিন শিশুকে।

৮. আপনার সন্তানের শরীর ও মাথা ঠান্ডা রাখুন

উষ্ণ তাপমাত্রা একজন শিশুর ক্ষুধা হ্রাস করে আর এই কারণেই আমরা শীতকালে কোন সমস্যা ছাড়া আরো বেশি খেতে সক্ষম হই। কিন্তু একই পরিমাণ খাবার গ্রীষ্মে খাওয়া অবিশ্বাস্য হয়ে ওঠে। আপনার শিশুর খাবার পরিবেশটি বায়বীয় রাখুন, এবং আপনি আপনার সন্তানের ক্ষুধা পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

৯. জিংক সমৃদ্ধ খাদ্য খাওয়ান

উল্লিখিত হিসাবে,জিঙ্কের অভাব ক্ষুধা ক্ষতির জন্য দায়ী, তাই জিঙ্ক সমৃদ্ধ খাদ্য খাওয়ান। কাজু বাদাম, গম, কুমড়া ইত্যাদি জিংক সমৃদ্ধ। এর জন্যে আপনি ডাক্তারের সাথেও পরামর্শ করতে পারেন।

১০. বাচ্চাকে তার প্রিয় খাবারটি মাঝে মাঝে খেতে দিন

খাবারের ব্যাপারে শিশুরা মেজাজ দেখতে পারে। তারা এমন কিছু খেতে পারবে না যা তারা পছন্দ করে না তা যতই পুষ্টিকর হোক না কেন। সুতরাং, একটি সুস্থ ক্ষুধা তৈরি করার জন্য, তাদের প্রিয় খাবারের আইটেমগুলি রাখুন। এগুলি তাদের খাওয়ার দিকে আকৃষ্ট করবে।

আপনার বাচ্চা খাবার মুখে নিয়ে ফেলে দিচ্ছে কি না সেটি নিশ্চিত করার ৬টি উপায়

বাচ্চাদের পুষ্টি : ছোটদের জন্য খাদ্য প্রণালী

শিশুর পুষ্টি: জেনে নিন ৩টি সবচেয়ে পুষ্টিকর খাদ্য যা শিশুর স্বাস্থ ও শক্তি বিকাশে সাহায্য করে

৫টি উত্তর ভারতীয় শিশু খাদ্য রন্ধন প্রণালী

আপনার শিশুর জন্য সবজি এবং ফল মেশানো কিছু খাবার

Leave a Reply

%d bloggers like this: