জল খাওয়ার সময়ে দাঁড়িয়ে জল খাচ্ছেন, ক্ষতি করছেন নিজের

মানুষের দেহের সমগ্র ওজনের ২/৩ অংশই জলের ওজন। শীত হোক বা গ্রীষ্ম, শরীরে যথেষ্ট পরিমাণে জল থাকা প্রয়োজনীয়। জল থাকার কারণে এতে রক্ত সঞ্চালনে অসুবিধা হয় না। শুধু বেশি পরিমাণে জল খাওয়াই নয়, জল খাওয়ার ধরনের দিকেও নজর দেওয়া প্রয়োজন!

প্রতিদিন নির্দিষ্ট পরিমাণে জল মানুষের শরীর থেকে বেরিয়ে যায় ভিবিন্ন মাধ্যমে। তাই জল এমন ভাবে খাওয়া উচিত, যাতে শরীরের যথেষ্ট পরিমাণে জল থাকে। আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, দাঁড়িয়ে জল খাওয়া উচিত নয়। এমনকী, আপনি কী ভাবে জল খান, তার উপরে নির্ভর করে সারা দিন আপনার শরীর কেমন থাকবে।

জল খাওয়ার সময়ে, জল ঠান্ডা না গরম তার উপরে নজর দেওয়া হয়। কিন্তু তেষ্টার কারণে অনেক সময়েই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে জল খেয়ে ফেলেন। দাঁড়িয়ে জল খাওয়ার সময়ে, স্নায়ু অনেক বেশি উত্তেজিত থাকে। দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে জল খাওয়ার সময়ে জল খাওয়ার গতি অনেক বেড়ে যায়। এর ফলেই বাতের ব্যাথা বা জয়েন্ট পেন-এর শিকার হতে হয়। 

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে কী গতিতে জল খাবেন তার উপরেও নির্ভর করছে আপনার স্বাস্থ্য। প্রত্যেকটি খাবারই ধীর গতিতে খাওয়া উচিত। এতে খাবার সহজে হজম হয়। ধীর গতিতে জল না খেলে, খাদ্যনালীতে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যায়। এর ফলে, হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়া বা ফুসফুসের রোগের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

দৌড়ে এসে, বা খুব পরিশ্রম করার পরে সঙ্গে সঙ্গে জল খেলেও ফুসফুসের সমস্যা হতে পারে। তবে এখন থেকে জল খাওয়ার সময়ে, কিছুক্ষণ বিশ্রাম করে জল খান।

Leave a Reply

%d bloggers like this: