শোয়ার ভুল শারীরিক অসুস্থর কারণ হতে পারে

ঘুমের মত আনন্দের কিছু নেই। সে রাতের হোক কিংবা দুপুরের ভাত ঘুম, কিন্তু আপনার শোবার ভঙ্গি কেমন? কি ভাবে ঘুমোন আপনি? কারণ আপনার শোবার অভ্যাসের উপর অনেকটাই নির্ভর করে শারীরিক সুস্থ-অসুস্থতা।

মাথা ব্যথা

শোবার সময় ঘাড় কী অবস্থায় থাকে, তার উপর অনেকটাই নির্ভর করে মাথা ব্যথা। আপনার বালিশ এমন হওয়া উচিৎ যাতে মাথা ও ঘাড় একই লাইনে থাকে। মাথা যেন ঘাড় থেকে বেশি উঁচু বা নিচুতে থাকলেই মাথায় ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

পিঠে ব্যথা

৮০ % মানুষের পিঠে ব্যথা হয় ভুল শোবার কারণে। হাঁটুর নিচে ছোট বালিশ ও কোমরের নিচে চাদর ভাঁজ করে রাখার উপদেশ দেন অনেকে। যারা চিৎ হয়ে শুতে স্বাচ্ছন্দবোধ করে, তাদের অবশ্যই মেনে চলা উচিত এই পদ্ধতি।

সাইসান

যাদের সাইনাসের সমস্যা রয়েছে, তারা একটা এক্সট্রা বালিশ ব্যবহার করতে পারেন। এর ফলে শোবার সময় নাক বন্ধ হয়ে নিঃশ্বাস নিতে অসুবিধা হবে না। এবং, মাথা অল্প উঁচু থাকলে, এয়ারকন্ডিশনারের ঠান্ডা হাওয়া সোজাসুজি নাকে ঢুকে সাইনাসে প্রবেশ করতে পারে না।

কাঁধে ব্যথা

বিশেষজ্ঞের মতে, পাশ ফিরে শোয়া সব থেকে ভাল। এর ফলে, শিঁড়দারা সোজা থাকে। আরও ভাল ফল পাওয়ার জন্য দু’পায়ের হাঁটুর মাঝে একটি ছোট বালিশ রাখতে পারেন, কাঁধের ব্যথাও কম থাকে এর ফলে।

রক্তচাপ

উল্টো হয়ে শুলে ব্লাড প্রেসার কম থাকে।

হাঁটুর ব্যথা

যাদের পাশ ফিরে শোয়ার অভ্যাস, তারা দু’হাঁটুর মাঝে বালিশ দিয়ে শুলে উপকার পাবেন। যাদের চিৎ হয়ে শোবার অভ্যাস, তারা কোমরের নিচে একটি তোয়ালে বা চাদর ভাঁজ করে রাখতে পারেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: