এই বলিউড নায়িকারা করিয়েছিলেন ফেয়ারনেস ট্রিটমেন্ট; আসুন দেখা যাক তাদের আগের চেহারা ও পরিবর্তনের পরের চেহারা

বলিউড নায়িকাদের জনপ্রিয়তার অন্যতম মূলধন তাঁদের রূপ। কিন্তু সকলেই যে তাঁদের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে নিয়ে সন্তুষ্ট থাকেন তা নয়। ভারতের মতো দেশে ফর্সা গায়ের রং-কে নারীর সৌন্দর্যের অন্যতম উপাদান বলে মনে করা হয়। বলিউড নায়িকাদের মধ্যে অনেকে রয়েছেন যাঁরা জন্মগতভাবে শ্যামবর্ণা, কিন্তু পরবর্তীকালে ফেয়ারনেস ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে গায়ের রং বদলে ফর্সা হয়েছেন বলে শোনা যায়। এখানে রইল তেমনই ১০ নায়িকার কথা।

১. শিল্পা শেট্টি

জন্মগতভাবে শিল্পা শ্যামবর্ণা। কিন্তু ফেয়ারনেস ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে ক্রমশ ফর্সা হয়েছেন তিনি।

২. প্রিয়ঙ্কা চোপড়া

প্রিয়ঙ্কা যখন বিশ্বসুন্দরী হন তখনও বেশ কালো ছিলেন তিনি। এখন কিন্তু তিনি ফর্সা।

৩.কাজল

অভিনয় জীবনের একেবারে প্রথম দিকে কাজল ছিলেন বেশ শ্যামবর্ণা। এখন আর তেমনটা নেই।

৪. চিত্রাঙ্গদা সিংহ

চিত্রাঙ্গদাও বেশ খানিকটা ফর্সা হয়েছেন বয়েস বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে।

৫. বিপাশা বসু

তফাৎ এসেছে বিপাশার গায়ের রং-এও।

৬. দীপিকা পাড়ুকোন

আগের এবং এখনকার দীপিকার মধ্যে গায়ের রং-এর অনেকটা পার্থক্য লক্ষ করা যায়।

৭. রেখা

এই চিরতরুণী নায়িকাও কিন্তু বয়সকালে বেশ উজ্জ্বলবর্ণা হয়ে উঠেছেন।

৮. ফ্রিদা পিন্টো

ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই হলিউড নায়িকাও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বেশ খানিকটা ফর্সা হয়ে গিয়েছেন। বোঝাই যায়, ফেয়ারনেস ট্রিটমেন্টের কামাল।

৯. শ্রীদেবী

জন্মগতভাবে বেশ কালোই ছিলেন শ্রীদেবী। এখন কিন্তু বেশ উজ্জ্বল হয়ে গিয়েছে তাঁর গায়ের রং-এ।

১০. রাখি সাওয়ন্ত

শরীরের অনেক কিছুই প্লাস্টিক সার্জারির মাধ্যমে পাল্টেছেন রাখি। সেই বদলের তালিকায় রয়েছে তাঁর গায়ের রং-ও।

Leave a Reply

%d bloggers like this: