এই সংকেতগুলি বোঝায় যে আপনার শাশুড়ি আপনাকে পছন্দ করেন না

শাশুড়ী ও বৌমার মধ্যে সম্পর্ক সবসময়ই অনিশ্চিত। সর্বাধিক মহিলারা তাঁদের শাশুড়ীর সাথে অসন্তুষ্ট এবং অধিকাংশ শাশুড়ীরাও তাঁদের বৌমার সম্পর্কে অভিযোগ করেন। এটি বিশেষ করে ভারতের মতো একটি দেশে বেশি করে দেখা যায়, যেখানে যৌথ পরিবার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনার সম্ভাব্য পূর্ণতা হবে যদি আপনার শাশুড়ী আপনাকে ভালোবাসেন । এখানে কিছু ইঙ্গিত আছে যা আপনাকে বলবে যে আপনার শাশুড়ী আপনাকে অপছন্দ করেন।

১. তিনি আপনাকে নিচু ছোট করবেন

এটি সবচেয়ে সাধারণ উপায় যার মাধ্যমে তিনি দেখান যে তিনি আপনাকে পছন্দ করেন না। তিনি আপনাকে অপমান করার কোনো জায়গায় ছাড়বেন না। আপনার স্বামীর সামনে, বন্ধুদের সামনে বা আপনার পরিবারের সামনে, যেখানেই হোক ওনার কাছে কোনও ব্যাপার নয়।

৩. আপনার পরিশ্রম বা বুদ্ধি তাঁর কাছে কোনো মাপকাঠি রাখবে না

এক প্রবীণ ব্যক্তি তাঁর কৃতিত্বকে সবসময় সর্বোচ্চ প্রমাণ করে এবং বৌমার সিদ্ধান্ত বা বুদ্ধিকে দাম দেন না। এটি হল আপনাকে তাঁর পছন্দ নয় সেটির প্রতীক।

৩. যদি আপনি তাঁর জন্য একজন প্রতিদ্বন্দ্বী হন, তাহলে উনি প্রতি ধাপে আপনাকে চ্যালেঞ্জ করবেন

যদি তিনি আপনাকে অপছন্দ করেন তবে তিনি আপনাকে প্রতিটি ধাপে চ্যালেঞ্জ করবেন। তিনি আপনাকে পছন্দ করেন না এবং আপনি যা পছন্দ করেন বা যেভাবে অনুভব করেন, উনি আপনার চেয়ে ভালো করতে পারেন এটা উনি প্রমান করেই ছাড়বেন।

৪. তিনি আপনার ভুলগুলি সংশোধন করতে ভুলবেন না

প্রত্যেক শাশুড়ী সরাসরি বলে না যে সে তাঁর বৌমাকে পছন্দ করেন না। কিছু একটা ভিন্নভাবে এবং পরোক্ষভাবে প্রকাশ করেন। আপনি ধরুন আপনার স্বামীর জন্মদিনে ওনার জন্যে একটি বই কিনলেন যা ওনার ভাল লাগে, কিন্তু আপনার শাশুড়ি তারমধ্যেও বলবেন যে বইটি আপনার ছেলের ভালো লাগবেনা এবং আপনি ভুল জিনিস পছন্দ করেছেন।

৫. তিনি সবসময় আপনার অন্য মেয়েদের সঙ্গে আপনার তুলনা করবেন যাদের সাথে উনি ছেলের সম্বন্ধ দেখেছিলেন

এটি সবচেয়ে খারাপ জিনিস যে আপনার শাশুড়ী আপনার স্বামীর পুরাতন বান্ধবী বা একটি মেয়ের সঙ্গে তুলনা করেন যার সাথে আপনার স্বামী বিয়ে অস্বীকার করেছেন এবং এই তুলনা বৃদ্ধি হতেই থাকবে যতক্ষণ না আপনার ও আপনার স্বামীর মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরী হবে।

আপনার শাশুড়ী আপনার প্রতি কঠোর কি না বা আপনাকে অপছন্দ করেন কিনাতা জানতে কোথাও একটা সুযোগ আপনাকে দিতে হবে যাতে আপনি কিভাবে তাঁদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন বা কিভাবে তাঁদের অপছন্দ করা কমাতে পারেন তা বুঝতে পারেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: