বর্ষাকালে চুলের নানা সমস্যা ও তার প্রতিকার

বর্ষা মানেই রঙিন ছাতা। বর্ষা মানেই রথের মেলা। বর্ষা মানেই গরম খিচুড়ি। কিন্তু, ভেবে দেখেছেন কি কখনও, যে বর্ষার জলে কী ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে আপনার চুল?

বর্তমানে আবহাওয়ায় যে ভাবে পরিবর্তন ঘটছে, তাতে প্রায় জানুয়ারির শেষ থেকেই গরম জামা-কাপড় লুকিয়ে পড়ে আলমারির একেবারে উপরের তাকে। আর বছরের দ্বিতীয় মাসটি শেষ হতে না হতেই, ঘরের সিলিং ফ্যানগুলি ডানা ঘোরাতে শুরু করে।

স্বাভাবিক ভাবেই তাই প্রথম ধারাপাতের সঙ্গে মানুষের প্রেম বড্ড নিবিড় হয়। তার পরে তো মাস দেড়েক ধরে চলতে থাকে কাদা-জলের সঙ্গে দৈনন্দিন লড়াই।

আবহাওয়া এই সময়ে বেশ চিটচিটে হয়ে যায়, যার ফলে মাথার চুলও হয়ে যায় কেমন চ্যাটচ্যাটে। খুশকিরও সমস্যা দেখা দেয় বর্ষার সময়।

জেনে নিন কয়েকটি সহজ উপায় যাতে আপনার মাথার চুল থাকে বছরের অন্যান্য সময়ের মতোই স্টাইলিশ।

১। বর্ষার সময় চেষ্টা করুন যথাসম্ভব কম হেয়ার-প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে। অর্থাৎ, হাল্কা কোনও শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার। হেয়ার-স্প্রে না লাগানোই ভাল।

২। মাথার চুলের স্বাস্থ্যের জন্য তা পরিষ্কার রাখা উচিৎ সব সময়ই। বিশেষ করে বর্ষাকালে। না হলে, মাথায় খুশকি হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। প্রয়োজনে সপ্তাহে অন্তত তিনবার শ্যাম্পু করুন।

৩। বর্ষাকালে যখনই শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন, কন্ডিশনার অবশ্যই লাগাবেন। তবে খেয়াল রাখবেন, চুলের গোড়া বা আগায় কন্ডিশনার না লাগিয়ে চুলের লেন্থ বরাবর লাগান।

৪। সপ্তাহে একবার হট-অয়েল মাসাজ অবশ্যই করুন। এতে চুলের পুষ্টি ঠিক থাকে।

৫। হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করলেও তা যেন কোনওভাবেই মাথার চামড়ার কাছাকাছি না থাকে।

এবার সব থেকে জরুরি কথা। অনেক দিন পরে বৃষ্টি হলে ভিজতে কার না মন চায়! কিন্তু, বৈজ্ঞানিকদের মতে, প্রথম বর্ষার জলে না ভেজাই ভাল। কারণ, সেই জলের সঙ্গে বাতাসের প্রচুর জীবাণুও ঝরে পড়ে। যা চুলের স্বাস্থ্যের জন্য একেবারেই ঠিক নয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: