ওজনের সাথে কি খাওয়াদাওয়ার কোনো যোগাযোগ রয়েছে?

ওজন কমানোর জন্য বেশিরভাগ মানুষ চিন্তিত থাকেন। এসব করতে গিয়ে কেউ কেউ খাওয়া বন্ধ করে ডায়েট এবং ব্যায়াম করেন। আবার অনেকে না খেয়ে অসুস্থই হয়ে পড়েন। কিন্তু এত কিছুর পরও ওজন কমে না। অথচ একটু সচেতন হলেই কিন্তু আমরা নিয়ম মতো খাওয়াদাওয়া করে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারি। অবাক হলেও সত্য যে, এমন কিছু খাবার আছে যে খেয়ে আপনি ওজন কমাতে পারেন।

১. কাঠবাদাম


কাঠবাদামে ভালো ফ্যাট এবং প্রোটিন রয়েছে যা দেহকে নানা রোগের হাত থেকে বাঁচায়। তাই ক্ষুধা লাগলে একমুঠো কাঠবাদামই খেয়ে নিন। এতে শুধু ক্ষুধাই কম লাগবে না, আবার ওজনও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

২. গাজর


গাজরে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, বেটা ক্যারোটিন এবং ভিটামিন রয়েছে। এটি অস্বাস্থ্যকর খাবার থেকে আপনাকে দূরে রাখার পাশাপাশি ওজনও নিয়ন্ত্রণে রাখবে। তাই প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় এই খাবারটি রাখার চেষ্টা করুন।

৩. আপেল


ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে আপেলের জুড়ি মেলা ভার। একটি মাঝারি আকারের আপেলে অনেকটা সময় ধরে পেট ভরা রাখবে। ফলে ক্ষুধাও কম লাগবে। এতে সহজেই ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

৪. ওটমিল


এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে, যা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাকতে সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালের এক বাটি ওটমিল খেলে তা সারা দিন শরীরে এনার্জি ধরে রাখে। আবার ক্ষুধাও অনুভূত হয় না।

৫. পেয়ারা

পেয়ারাতে ফাইবার রয়েছে। এই খাবারটিও আপনাকে দীর্ঘ সময় অস্বাস্থ্যকর খাবার থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করবে।

৬. ডাল


স্বাস্থ্যকর উদ্ভিজ্জ প্রোটিনের মধ্যে ডাল অন্যতম। এই খাবারটিও দীর্ঘ সময় পর্যন্ত খিদে মেটায়, আবার পেটও ভর্তি রাখে।

৭. ব্রোকলি


সেদ্ধ ব্রোকলিতে অনেকটা সময় আপনাকে নানা ধরনের ফাস্টফুড থেকে বিরত রাখবে। ফলে সহজেই ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে। 

Leave a Reply

%d bloggers like this: