গর্ভাবস্থায় তৈলাক্ত মাছ খাওয়া কি ভাল?

গর্ভাবস্থায় যে মহিলারা তৈলাক্ত মাছ খেয়েছেন এবং যাঁরা খাননি, এমন বেশ কিছু মহিলার সন্তানদের জন্মের পরে দু’বার রক্ত পরীক্ষার পরে এই দাবি করেছেন গবেষকরা যে গর্ভাবস্থায় তৈলাক্ত মাছ খাওয়া বেশ ভাল।

স্বাস্থ্যজনিত কারণে অনেকেই সামুদ্রিক বা তৈলাক্ত মাছ এড়িয়ে যান। কিন্তু গর্ভাবস্থায় মহিলারা যদি সামুদ্রিক তৈলাক্ত মাছ খান, তাহলে তা তাঁদের সন্তানদের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী।

গর্ভাবস্থায় যে মহিলারা স্যামনের মতো তৈলাক্ত মাছ খেয়েছেন, তাঁদের সন্তানদের মধ্যে হাঁপানির সমস্যা অনেক কম হয়। গবেষকদের দাবি, ফ্যাটি অ্যাসিড-এর অভাবে শিশুদের মধ্যে অ্যালার্জি, হাঁপানি-সহ বিভিন্ন ধরনের রোগের প্রবণতা দেখা দেয়।

গবেষণা চলাকালীন গর্ভাবস্থার ১৯ সপ্তাহ থেকে মহিলাদের সপ্তাহে দু’বার স্যামন মাছ খাওয়ানো হয়। এরপরে ওই মহিলাদের সন্তান জন্মানোর পরের প্রথম ছ’মাস এবং তার পরের দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে তাঁদের অ্যালার্জি টেস্ট করানো হয়। একই সঙ্গে, যে মহিলারা গর্ভাবস্থায় স্যামনের মতো তৈলাক্ত মাছ খাননি, তাঁদের সন্তানদেরও একই ধরনের রক্ত পরীক্ষা করানো হয়। দেখা যায়, তৈলাক্ত মাছ খাওয়া মহিলাদের সন্তানদের মধ্যে কোনও ধরনের অ্যালার্জির সন্ধান পাওয়া যায়নি। ফলে তাদের মধ্যে হাঁপানির প্রবণতাও অনেকটাই কম।

Leave a Reply

%d bloggers like this: