যোনিকে লিউব্রিকেটেড বা আর্দ্র রাখার জন্যে বিশেষ কয়েকটি খাদ্য

যোনিরসের কম নিঃসরণ বা ভ্যাজাইনাল ড্রাইনেস মেয়েদের একটি সাধারণ সমস্যা। বাজারের কেনা লুব্রিক্যান্ট ব্যবহার করা ছাড়াও কিছু কিছু বিশেষ খাবার খেলে প্রাকৃতিক উপায়ে এই সমস্যার সমাধান সম্ভব।

ভ্যাজাইনাল ড্রাইনেস বা যোনিরসের কম নিঃসরণ নানা কারণে হতে। হিস্টেরেকটমি, অ্যান্টি-ইস্ট্রোজেন ওষুধ, সন্তানের জন্ম বা কেমোথেরাপির কারণে যেমন যোনিরসের ক্ষরণ কম যায়, পাশাপাশি ধূমপান এবং স্ট্রেসের জন্যেও যোনিরস নিঃসরণ কমে যেতে পারে।

বাজারে অনেক ভাল লুব্রিক্যান্ট রয়েছে যা ব্যবহার করা যায় ভ্যাজাইনাল ড্রাইনেস দূর করার জন্য। তাছাড়াও বেশ কিছু খাবার রয়েছে যা দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় রাখলে যোনিরস নিঃসরণ তুলনামূলকভাবে বাড়তে পারে।

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই ও জিঙ্ক-সমৃদ্ধ খাবার খেলে যোনির আর্দ্রতা বাড়ানো সম্ভব।

১) প্রতিদিন অন্তত ২৫ গ্রাম সয়-জাতীয় প্রোটিন খেতে হবে। সয়-জাতীয় খাবারে থাকে ফাইটোইস্ট্রোজেন, প্রোটিন, ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, ক্যালসিয়াম, ফোলিক অ্যাসিড, আইরন এবং অন্যান্য ভিটামিন। রান্নায় সয়াবিন ছাড়াও সয় চিজ ও সয় মিল্ক খেতে পারেন।

২) বাদামে হল ওমেগা-৩ ফ্যাটসমৃ্দ্ধ একটি সহজলভ্য, সস্তা খাবার। তাই প্রতিদিন অন্তত একবেলা একমুঠো বাদাম খাওয়া অভ্যাস করুন।

৩) প্রতিদিন না হলেও সপ্তাহে তিন দিন মাছ খান, বিশেষ করে সামুদ্রিক মাছ। এতে ওমেগা-৩ ফ্যাট ছাড়াও জিঙ্ক ও ভিটামিন বি থাকে প্রচুর পরিমাণে।

৪) তিসিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফাইটোইস্ট্রোজেন। তিসি গুঁড়িয়ে ইয়োগার্ট, স্যালাড বা ব্রেকফাস্ট সিরিয়াল্‌সের সঙ্গে মিশিয়ে খান।

৫) ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফলমূল খেতে হবে দিনে অন্তত একটি। এপ্রিকট না পেলেও আপেল সহজলভ্য। 

Leave a Reply

%d bloggers like this: