সন্তান ছেলে হবে না মেয়ে তা বলবে আপনার ব্লাড প্রেসার

গর্ভের সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে, সেটা জানা যাবে গর্ভবতী মহিলার রক্তচাপ থেকেই! হ্যাঁ, এমনটাই জানাচ্ছেন গবেষকরা। যদি গর্ভবতী মহিলার রক্তচাপ প্রসবের আগে কম থাকে, তাহলে সাধারণত, সেই মহিলা কন্যা সন্তান প্রসব করেন। আর মহিলার রক্তচাপ যদি বেশি থাকে, তাহলে পুত্র সন্তানের জন্ম হয়।

২০০৯ সাল থেকে চীনের লুইয়াং শহরে গত সাত বছর ধরে ৩৩৭৫ জন গর্ভবতী মহিলার উপর পরীক্ষা করেছে গবেষক দল। তার মধ্যে ১,৬৯২ জনের রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইড এবং গ্লুকোজের মূল্যায়ন করা হয়। তাঁদের মধ্যে ৭৩৯ জনের ছেলে ও ৬২৭ জনের মেয়ে হয়। দীর্ঘ পর্যবেক্ষণের পরই গবেষক দল এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন।

গর্ভবতী মহিলার প্রসবের আগের রক্তচাপের ওঠানামা অনেককিছুই নির্দেশ করে। যদি প্রসবের আগে গর্ভবতী মহিলার রক্তচাপ বেশ কমে যায়, তাহলে তিনি কন্যা সন্তানের জন্ম দিচ্ছেন। আর যাঁর রক্তচাপ অনেকটা বেড়ে যায়, তাহলে তিনি পুত্র সন্তানের জন্ম দিচ্ছেন।

এক্ষেত্রে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক গর্ভবতীর বয়স, শিক্ষা, ধূমপান, এলডিএল কোলেস্টেরল, এইচডিএল কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইডস এবং গ্লুকোজের উপর নির্ভর করে গর্ভাবস্থার রক্তচাপ। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যেসব মহিলাদের রক্তচাপ গর্ভাবস্থার একেবারে শেষ লগ্নে বেশি থাকে, তাঁদেরই ছেলে হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: