শীতে চুলের যত্ন

শীত আসছে, ত্বকের সাথে সাথে চুলেরও নানা সমস্যা দেখা দিতে থাকে। অনেকেই ঠান্ডার কারণে চুল না ভিজিয়ে স্নান না করে নিজের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। এই সময় চুল পড়াও খুব বেড়ে যায়। যাদের নিত্য দিন বাইরে কাজে যেতে হয় তারা হয়তো ঠিক মতো চুলে তেল ব্যবহার করতে পারেন না। কি করবেন এই পরিস্থিতিতে আসুন জেনেনি।

নিয়মিত অয়েল ম্যাসাজ


অনেকেই মনে করেন তেল মাখলে ঘষাঘষিতে আরও বেশি চুল পড়ে। কিন্তু অয়েল ম্যাসাজ এই সময় অত্যন্ত জরুরি। নয়তো চুল শুষ্ক হয়ে গিয়ে গোড়া আরও আলগা হয়ে যাবে। তাতে চুল পড়া আরও বাড়বে। তাই শ্যাম্পু করার অন্তত ঘণ্টা দুয়েক আগে একটু নারকেল তেল, একটু অলিভ অয়েল আর একটু অ্যাভোকাডো অয়েল মিশিয়ে অল্প গরম করে নিন। তারপর একটা তুলোর সাহায্যে স্ক্যাল্পে অল্প অল্প করে লাগিয়ে আলতো হাতে ম্যাসাজ করুন কিছুক্ষণ। বেশি জোরে ঘষবেন না। তাতে চুলে ক্ষতি হবে। হয়ে গেলে, পারলে একটা তোয়ালে গরম জলে ভিজিয়ে সেটা চিপে মাথায় বেঁধে নিন। আধঘণ্টা রাখলে তেলটা চুলের গোড়া পর্যন্ত পৌঁছবে ভাল করে।

অ্যালোভেরা


এই সময় চুলে বাড়তি পুষ্টি দরকার। তাই অয়েল ম্যাসাজ ছাড়াও যদি অ্যালোভেরার রস চুলে লাগিয়ে রাখতে পারেন, তাহলে ভাল হয়। বাড়িতে গাছ থাকলে সবচেয়ে ভাল। না থাকলেও চিন্তা নেই। বাজারে অনেক ধরনের অ্যালোভেরা জেল সহজেই পাওয়া যায়। সেগুলো লাগাতে পারেন।

পেঁয়াজের রস


চুল পড়ার সমস্যা কমাতে পেঁয়াজের রস দারুণ কাজে দেয়। এমনকী, নতুন চুল গজাতেও নাকি সাহায্য করে পেঁয়াজের মধ্যে থাকা কোলাজেন। তাই খুশকি এবং স্ক্যাল্প ইনফেকশন কমাতেও এটা উপকারী। পেঁয়াজ গ্রেট করে একটা পাতলা সুতির কাপড়ের মধ্যে নিয়ে বেঁধে রসটা বার করে নিন। দরকার হলে অনেকটা রস করে রেখে ফ্রিজে রেখে নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন। চুলের গোড়ায় লাগিয়ে আধঘণ্টা রাখতে হবে। তারপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ফল ও সব্জি


চুল পড়া শরীরের ভিতরের সমস্যাও বটে। দিনে অন্তত আট থেকে দশ গ্লাস জল অবশ্যই খাবেন। রোজকার খাবারে বেশি করে ফল সব্জি রাখুন। ভাজাভুজি কম খাওয়ার চেষ্টা করুন। পারলে ব্রেকফাস্টের সময় ভিটামিন ই ট্যাবলেট খেতে পারেন। ভিটামিন ই চুলের পুষ্টির পক্ষে উপকারী।

রোজকার অভ্যেস পাল্টান


অনেক কিছুই আমরা অজান্তে করে ফেলি যেগুলো চুলের পক্ষে ক্ষতিকর। ভিজে চুল আঁচড়াবেন না। চুল শোকানোর জন্যে ঘন ঘন ব্লো ড্রাই করবেন না। করলেও নজেলটা নীচের দিকে রেখে অল্প হিটে কিছুটা দূর থেকে ব্যবহার করুন। শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার আর সেরাম অবশ্যই লাগাবেন। 

Leave a Reply

%d bloggers like this: